জেনে নাও ই-মেইলের দরকারি ১০টি অ্যাপ এর কাজ।

0

এখন অনেকে ই-মেইলের আদান-প্রদান স্মার্টফোনেই সেরে ফেলেন। কাজের ধরন এবং সুবিধা অনুযায়ী একাধিক ই-মেইলও ব্যবহার করেন কেউ কেউ।

এ ধরনের সেরা ১০ ই-মেইল অ্যাপের কথা তুলে ধরা হলো এ প্রতিবেদনে।

ব্লুমেইল
কাজের প্রয়োজনে অনেক সময় একাধিক মেইল ব্যবহার করতে হয়। এসব মেইল নিয়ন্ত্রণের জন্য আলাদা অ্যাপ ব্যবহার কিংবা প্রতিবার ইউজার নেম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে লগ ইন করা বেশ ঝামেলার। এতে অনেক সময় নষ্ট হয়।

তবে ব্লুমেইল অ্যাপটি ব্যবহার করে একাধিক মেইল সেবা ব্যবহার করা যাবে। এটির মাধ্যমে ইয়াহু, জিমেইল, আউটলুকসহ যে কোনো মেইল সেবা যুক্ত করে মেইল আদান-প্রদান সুবিধা উপভোগ করা যাবে।

একই সঙ্গে বিভিন্ন মেইল সেবার একাধিক মেইল অ্যাকাউন্টও যুক্ত করা যাবে অ্যাপটিতে। হোম স্ক্রিন থেকে মেইল দেখতে অ্যাপটিতে রয়েছে উইজেট সুবিধাও।

এতে রয়েছে বিভিন্ন মোড। বিশেষ করে রাতের জন্য রয়েছে ডার্ক মোড।

গুগল প্লেতে ৪.৬ রেটিংপ্রাপ্ত অ্যাপ্লিকেশনটি ১০ লাখের বেশি ডাউনলোড হয়েছে। এ ঠিকানাথেকে অ্যাপটি বিনা মূল্যে ডাউনলোড করে ব্যবহার করতে পারবেন।

জিমেইল
অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম চালিত ডিভাইসে ডিফল্ট অ্যাপ্লিকেশন হিসেবে এ ই-মেইল সেবা ইনস্টল করাই থাকে। ওয়েব ব্রাউজারের মাধ্যমে জিমেইল ব্যবহারে যে সেবাগুলো পাওয়া যায়, তেমন সব সেবাই মিলবে জিমেইল অ্যাপে।

অ্যাপটিতে সামাজিক ও বিজ্ঞাপনমূলক মেইল ফিল্টারের জন্য আলাদা বিভাগ রয়েছে।

এ ছাড়া স্প্যামিং থেকে ব্যবহারকারীদের রক্ষা করতে বিশেষ ফিল্টারিং সুবিধা পাওয়া যাবে এতে।

অ্যাপটির আরেকটি চমৎকার সুবিধা হলো এতে চাইলে আউটলুক, ইয়াহু বা অন্য আইএমএপি/পিওপি মেইল সেবা ব্যবহার করা যাবে।

অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহারকারীরা এ ঠিকানা থেকে এবং আইওএস ব্যবহারকারীরা এ ঠিকানাথেকে বিনা মূল্যে ডাউনলোড করতে পারবেন অ্যাপটি।

কে-৯ মেইল

কে-৯ পুরনো একটি ই-মেইল অ্যাপ। বেশ সাদামাটা ডিজাইনের অ্যাপটি একটি ওপেন সোর্স প্রকল্প। যে কোনো ডেভেলপার চাইলেই অ্যাপটি ডেভেলপ করতে পারবেন।

এটির সব কোড ‘গিটহাবে’ ওপেন সোর্স হিসেবে দেওয়া আছে। যে কোনো ই-মেইল সেবার পাশাপাশি আইএমএপি, পিওপি২ মেইল সেবাও ব্যবহার করা যাবে।

মাত্র ৫.৫ মেগাবাইট সাইজের অ্যাপটি ৫০ লাখের বেশি ডাউনলোড হয়েছে। এ ঠিকানাথেকে এটি বিনা মূল্যে ডাউনলোড করা যাবে।

মাইমেইল

এটি মূলত মাইমেইল মেইল সেবার নিজস্ব অ্যাপ। অ্যাপটির ইউজার ইন্টারফেস বেশ সহজ ও সুন্দর। এতে জিমেইল, ইয়াহু, আউটলুক, এওএল, আইক্লাউডসহ আইএমএপি, পিওপি৩—সব প্রায় সব মেইল সেবা ব্যবহার করা যাবে।

অ্যাপটিতে বার্তা পাঠানোর সময় সহজেই ই-মেইল সিগনেচার, ফাইল ও ফোল্ডার যুক্ত করা যাবে। এতে আছে রিয়াল টাইম নোটিফিকেশনের সুবিধাও।

৪.৫ রেটিংপ্রাপ্ত অ্যাপটি ১০ লাখেরও বেশি ডাউনলোড হয়েছে। এ ঠিকানা থেকে বিনা মূল্যে অ্যাপটি ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

নাইন

আপনি যদি নিজের মেইলের নিরাপত্তার বিষয়ে উদ্বিগ্ন থাকেন, তাহলে আপনার জন্য কাজের অ্যাপ হতে পারে নাইন। এটি ব্যবহারকারীদের নিরাপত্তার দিকে বিশেষ নজর দিয়েছে।

এ অ্যাপ শুধু মেইল সার্ভারের সঙ্গে যুক্ত থাকা ব্যবহারকারীদের মেইল সেবা দেবে। এতে অনেক কাস্টমাইজেশন সুবিধা রয়েছে।

এ ছাড়া ই-মেইল আদান-প্রদানের জন্য অন্যান্য অ্যাপের মতোই সব সুবিধা মিলবে অ্যাপটিতে।

৪.৫ রেটিংপ্রাপ্ত অ্যাপটি ১০ লাখের বেশি ডাউনলোড হয়েছে। এ ঠিকানা থেকে বিনা মূল্যে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে।

প্রোটনমেইল

অ্যাপটি এনক্রিপটেড ই-মেইল সেবা দিয়ে থাকে। প্রেরক ও প্রাপক ছাড়া অন্য কোনো ব্যক্তির পক্ষে এ ই-মেইল পড়া অসম্ভব।

অ্যাপটির একটি আধুনিক ইউজার ইন্টারফেস রয়েছে। এতে একগুচ্ছ ফিচার আছে; যেমন—কাস্টোমাইজেবল সোয়াইপ গেসচার এবং এক্সপাইরিং ই-মেইল পাঠানোর সুবিধা।

৪.৬ রেটিংপ্রাপ্ত অ্যাপটির সাইজ মাত্র ৬ মেগাবাইট। এটি এ ঠিকানা থেকে ডাউনলোড করা যাবে।

ডিসপ্যাচ

ডিসপ্যাচ অ্যাপটি ব্যবহারকারীর মেইল ইনবক্সকে একটি টুডু তালিকা হিসেবে দেখায়। এটিতে আসা মেইলগুলো সরাসরি এভারনোটের মতো টুডু অ্যাপে সরাসরি সিনক্রোনাইজড হয়।

অ্যাপ্লিকেশনটি দ্রুত আপনার আর্কাইভগুলোতে মেইল পেতে বা অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনে পাঠানোর জন্য দ্রুত সাহায্য করে থাকে।

অ্যাপটিতে আইএমএপি সেবা ব্যবহার করা গেলেও পপ মেইল সেবা ব্যবহার করা যায় না।

আইওএস ব্যবহারকারীরা এ  ঠিকানা থেকে অ্যাপটি ডাউনলোড করতে পারবেন। অ্যাপটির মূল্য ৬.৯৯ মার্কিন ডলার।

এয়ারমেইল

এয়ারমেইল হলো ম্যাক ও আইওএসের জন্য একটি জনপ্রিয় ই-মেইল অ্যাপ। এ অ্যাপ সমর্থন করে আইক্লাউড, এমএস এক্সচেঞ্জ, জিমেইল, গুগল অ্যাপস, আইএমএপি, পিওপি৩, ইয়াহু, এওএল, আউটলুক ডটকম এবং লাইভ ডটকমের মতো ই-মেইল সেবা।

এয়ারমেইলের আইফোন সংস্করণ সমর্থন করে থ্রিডি টাচ। এ ছাড়া ফাস্ট ডকুমেন্ট প্রিভিউয়িং ও পিডিএফ ভিউ সুবিধা দিয়ে থাকে অ্যাপটি।

তবে অ্যাপটি বিনা মূল্যে মিলবে না। এটি ব্যবহার করতে হলে খরচ করতে হবে ৪.৯৯ মার্কিন ডলার। এ ঠিকানা থেকে এটি ডাউনলোড করা যাবে।

মিক্সম্যাক্স

মিক্সম্যাক্স নামের ই-মেইল সেবা প্রদানকারী অ্যাপটি দিয়ে ই-মেইলকে ট্র্যাক ও অটোম্যাট করা যাবে। এর ফলে ব্যবহারকারী জানতে পারবেন কে কখন তার ই-মেইল ওপেন করেছেন।

মিক্সম্যাক্সের সেবা ব্যবহার করে কপি ও পেস্ট না করেই ই-মেইল করতে টেম্পলেট ব্যবহার করা যাবে।

ব্যবহারকারীরা ইচ্ছা করলে একসময় একটি ই-মেইল টাইপ করে পরে কোনো এক নির্দিষ্ট সময়ে তা সেন্ড করার জন্য শিডিউল করতে পারবেন।

মেইলগ্রহীতা যখন এটি পড়তে চান, ঠিক সে সময় যেন এটি পৌঁছে যায়- সেভাবে শিডিউল করা যাবে।

মিক্সম্যাক্সের ক্রোম এক্সটেনশন রয়েছে। ফলে ক্রোম ওয়েব ব্রাউজ ব্যবহারকারীরা সেবাটি উপভোগ করতে পারবেন। এটির ব্যবহার এবং বিস্তারিত জানা যাবে এ ঠিকানায়

ইনবক্স বাই জিমেইল

ওয়েব জায়ান্ট গুগলের ইলেকট্রনিক মেইল সেবা জিমেইল সহজে ব্যবহারের জন্য ‘ইনবক্স বাই জিমেইল’ অ্যাপটি বাজারে আনা হয়।

এতে জিমেইল মোবাইল অ্যাপের চেয়ে আরও সুন্দর ইউজার ইন্টারফেস যুক্ত করা হয়েছে।

অ্যাপটিতে ডেস্কটপ ব্রাউজারে ইনবক্সে মেইলগুলো ক্যাটাগরি অনুযায়ী সাজানো থাকে। এসব ক্যাটাগরি আবার ট্যাব আকারে প্রদর্শিত হবে।

স্ট্যান্ডার্ড ভিউয়ে জিমেইলের যে অবস্থানে সিলেক্ট, ডিলিট, স্প্যামমার্ক প্রভৃতি টুল থাকে, সেখানেই নতুন ক্যাটাগরি ট্যাব পাওয়া যাবে।

সাধারণভাবে অ্যাপটিতে পাঁচটি মূল ট্যাব রয়েছে। এর মধ্যে আছে প্রাইমারি, সোশ্যাল, প্রমোশনস, ফোরামস ও আপডেটস।

এ ঠিকানা থেকে বিনা মূল্যে অ্যাপটি ডাউনলোড করা যাবে।

About Author

Leave A Reply

Powered by tuneround.com