প্রথমবারের জন্য অ্যাডসেন্স অনুমোদন টিপস। নতুন কৌশল 2019


Google_AdSense

অনেকেই জানেন যে  Adsense  হল বিশ্বের সবথেকে উচ্চ প্রদান Contextual অ্যাড প্রোগ্রাম। তাই আমি মনে করি এগুলো নিয়ে নতুনভাবে বলার কোন দরকার নেই। যদিও Google adSense চালু হওয়ার শুরুর দিকে সহজ ছিল, কিন্তু দিন যাচ্ছে গুগল তাদের  adSense Policy পরিবর্তন আনছে। যার ফলে সাধারণ ব্লগারদের পক্ষে adSense অনুমোদন  করাটা আরও অনেক কঠিন হয়ে পরছে। আমার কাছে মনেহয় Google adSense এর police অনুসরণ করে ব্লগিং চালিয়ে যান তাহলে যে কেউ ৫/৬ মাস পরই adSense অনুমোদন করতে পরবে। কারণ Google adSense  এর এর সকল ধরনের নিয়ম অনুসরণ করে কোন blog পরিচালনা করলে Google ব্লগটিকে পছন্দ ইনশাআল্লাহ করবেই। আর এটি আপনাকে সহজে  adSense অনুমোদন করতে সাহায্য করবে। নিচে আমরা ৯ টি গুরুত্বপূর্ণ টপিক শেয়ার করব যা আপনার ব্লগের জন্য adSense অনুমোদন করতে অনেক সাহায্য করবে।

Google adsense অনুমোদন এর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ৯ টি টিপস।


১. Domain
যেমন. Com, . Net, . Co, .in ইত্যাদি শীর্ষ স্তরের Domain কিনুন। এ ব্যাপারটি ব্লগিং এর ক্ষেত্রে অনেক ভাল ফল দেবে। এখন কথা হচ্ছে যে. com, .net, .co, . in  এর মত ডোমেইনগুলি এত ব্যয়বহুল তায় নতুনরা অনেকেই এত বিনিয়োগ করতে চায় না। তায় আপনি.xyz ডোমেইন নিতে পারেন অনেক কম দামে।

২. User friendly article 
আপনার পোস্টটি সহজ করে এসইও ফ্রেন্ডলি লিখুন যাতে পাঠকরা সহজেই পড়তে পারে।

৩. Post 
আপনি যদি  website এর ভাল মানের article post করতে পারেন মিনিমাম ৪০০-৫০০ ওয়ার্ড হলে ভাল হয়। নাহলে insufficient content দেখাতে পারে।

৪. Unique content 
গুগল চায় ভাল মানের কনটেন্ট এবং  টপিক যদি গুগলের নীতিমালা ভঙ্গ না করে, তবে ভাল মানের ৩০-৪০ টা পোস্ট দিয়ে এপ্রুভ করাতে পারবেন ইনশাআল্লাহ।

৫.Pages 
আপনার ৪টি  page তৈরি করতে হবে যা আপনার সাইটের জন্য গুরুত্বপূর্ণ, যেমন, About us,  Privacy policy, Contact us, Disclaimer. তো থাকবেই পশাপাশি দেখবেন কোন ক্যাটাগরি যেন ফাকা না থাকে। প্রতিটি ক্যাটাগরি তে কমপক্ষে ৫-৮ টা কনটেন্ট রাখবেন তাহলে খুবই ভাল হয়।

৬. Images
পোস্টে অনেকগুলি  image ব্যবহার না করাই ভাল। গুগল বলে যে লিখিত কাজটি কেবলমাত্র ১টি চিত্র থাম্বনেইলের জন্য যথেষ্ট হওয়া উচিত। অনুমোদনের পরে আপনি ব্যবহার করতে পারেন। গুগল থেকে কখনোই কপিরাইট image নিবেন না কোন  img নিলেও টাইটেল এবং সাইজ পরিবর্তন করে দেবেন তাহলে কোন সমস্যা হবে না।

৭.Theme & Customisation
আপনি সাইটে সিম্পল সাদামাটা থিম ব্যবহার করুন। আপনার সাইটটি পরিষ্কার রাখুন অতিরিক্ত উইজেট ব্যবহার করবেন না শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় এবং গুরুত্বপূর্ণ উইজেট ব্যবহর করুন। আপনার সাইটের একটি লোগো তৈরি করুন এবং উপরের দিকে রাখুন। পোস্ট লেবেল বা বিভাগ তৈরি করুন। বেশিরভাগ সময়ে smartphone review, education result, web design, seo, graphic tutorial and technology সাইট গুলো বেশি এবং দুরুত approve হয়।

৮.Sitemap
গুগল ওয়েবমাস্টর টুলে আপনার সাইট সাবমিট করুন এটির মূল বিষয়  হল যে আপনার সাইটের পোস্টগুলি গুগলে ইনডেক্স হওয়া লাগবে, না হলে আপনার সাইট টি  অনুমোদন পাবে না।

৯. Approve
একটা সাইট দিয়ে ২৫ দিনেও এপ্রুভাল পওয়া সম্ভব, সবই কনটেন্ট ও এসও জোরে তবে সাধারনত ৬০-৭০ দিন সময় নিলে ভাল হবে। আর কন্টেন্ট ভাল মানের হলে ভিজিটর না থাকলেও approve পাবেন ইনশাআল্লাহ।

শেষ কথাঃ সবকিছু নিয়ম মেনে চলুন কারণ নিয়ম না মেনে এ পর্যন্ত কেউ কোন কাজেই সাপল্য অর্জন করতে পরেনি। সুতরাং Google adSense এর সকল নিয়ম যথার্থ ভাবে পালন করতে হবে। বর্তমান বিশ্বে বিজ্ঞাপনের ভিতর adSense এর অবস্হান সবার উপরে। সুতরাং বুঝতে পেরেছেন Google adSense পাওয়ার জন্য আপনাকে কি পদক্ষেপ নিতে হবে।

Post a Comment

7 Comments