মারিয়ানা ওয়েব কী? মারিয়ানা ওয়েব এর আজব তথ্য !!

Hi Buddy..
আমি সারজিল শান্ত
This Tune About : মারিয়ানা ওয়েব Mariana Web.
চলুন শুরু করি।
আমরা Facebook,Instagram,Twitter,Youtube ব্যবহার করি এইগুলো – কে Surface Web বলা হয়, গুগল এ যখন কিছু সার্চ করা হয় এবং গুগল যেগুলো আমাদের সামনে তুলে ধরে এইগুলো – কে Surface Web বলা হয়ে থাকে।
 মারিয়ানা ওয়েব হলো ডার্ক ওয়েব এর থেকেও গভীর ওয়েব বলা হয়ে থাকে। এই মারিয়ানা নামটি এসেছে মারিয়ানা ট্রেঞ্চ থেকে। এই মারিয়ানা ট্রেঞ্চ হলো প্রশান্ত মহাসাগরের তলদেশের একটি খাত বা পরিখা। এটি বিশ্বের গভীরতম সমুদ্র খাত। এটি প্রশান্ত মহাসাগরের পশ্চিম প্রান্তে মারিয়ানা দ্বীপপুঞ্জের ঠিক পূর্বে অবস্থিত। মারিয়ানা খাত একটি বৃত্তচাপের আকারে উত্তর-পূর্ব থেকে দক্ষিণ-পশ্চিমে প্রায় ২৫৫০ কিমি ধরে বিস্তৃত। এর গড় বিস্তার ৭০ কিমি। অধোগমন নামক এক ভৌগোলিক প্রক্রিয়ায় এই খাতটি গঠিত হয়েছে। খাতটির দক্ষিণ প্রান্তসীমায় গুয়াম দ্বীপের ৩৪০ কিমি দক্ষিণ-পশ্চিমে পৃথিবীপৃষ্ঠের গভীরতম বিন্দু অবস্থিত। এই বিন্দুর নাম চ্যালেঞ্জার ডীপ এবং এর গভীরতা প্রায় ১১,০৩৩ মিটার। বিন্দুটি “এইচ এম এস চ্যালেঞ্জার ২” জাহাজের নামে নামকরণ করা হয়েছে।এই জাহাজের নাবিকেরাই বিন্দুটি ১৯৪৮ সালে আবিষ্কার করে, এই নাম থেকেই এর নাম হয়েছে মারিয়ানা’স ওয়েব। মারিয়ানা’স ওয়েব।
এটা মানা হয় যে,সরকার এর যতোসব টপ সিক্রেট তথ্যগুলো আছে তা এখানে পাওয়া যায়। দুনিয়ায় সবচেয়ে রহস্যময় আর গোপনীয় জিনিস যদি থাকে সেসব এখানে দেখা যায়। আরও বলা হয়  যে, “এটলান্টিস” সমুদ্রের নিচে এক কাল্পনিক দ্বীপ যেটি আছে; তার তথ্যও এই মারিয়ানা’স ওয়েবে আছে। আরও বলা হয় যে,ইলুমিনাটি বা ইলুমিনাটিদের লোকদের (শয়তানের পূজারী) সাথে যোগাযোগ; এর ব্যবস্থা এই মারিয়ানা’স ওয়েবে আছে। তাই এই মারিয়ানা’স ওয়েব হলো ইন্টারনেটের সবচেয়ে রহস্যময় ও গোপনীয় জায়গা। এর চাইতে রহস্যময় ও গোপনীয় ওয়েব আর নেই। একজন ওয়েব ডেভেলপার ছিলো যে ফ্রিল্যান্স কাজ করতো। একদিন তার Email আসে একটা তাকে কেউ টাকা দিতে চাই সে তার বিনিময়ে ওয়েবসাইট ডিজাইন করে দিবে। এভাবে ওই ব্যক্তিকে একজন Unknown লোক যার নাম 450w এটাকে তার কোডনাম বলা হয়; reddit নামের ইন্টারনেট ফোরামে ভাড়া করলো। ওয়েব ডেভেলপার জানতো না যে এই লোকটি কে। কিন্তু সেই Unknown লোকটি তাকে অনেক বেশী প্রাইজ অফার করল; খুবই সাধারন একটা কাজ করার জন্য। সে বলেছিলো আমি আপনার থেকে নরমাল ওয়েবসাইট আমার সার্ভারে ডিজাইন করে নিবো; এর বিনিময়ে আপনাকে সপ্তাহে ৫০ হাজার ডলার দিবো। তখন ওই ওয়েব ডেভেলপার এর মনে হলো কোনো স্ক্যাম বা এইরকম কিছু হবে হয়তোবা; কিন্তু তার টাকার দরকার ছিলো তাই সে অর্ডারটি নিয়ে নিলো। তারপর সেই ওয়েব ডেভেলপার দিয়ে পার্সোনল প্রাইভেট কোনো সার্ভারে কাজ করানো হলো; সাধারন একটি ওয়েবসাইট ডিজাইন করানো হলো। শুধু ডিজাইন করিয়ে নেয়া হলো কোনো কনটেন্ট দেয়া হলো না। এভাবে কাজ চলতে থাকলো, ৯ সপ্তাহ সেই ডেভেলপার কাজ করেছিলো। একসময় তার মনে ইচ্ছা জাগলো যে সে কোন সার্ভারে কাজ করছে তা জানার, তার কাছে ওই সার্ভার এর নির্দিষ্ট এলাকার এক্সেস ছিলো তাই সে বুঝতে পারছিলো না কিছু। তবে সে কিছু ফাইল ডাউনলোড করলো ওই সার্ভার থেকে; কিছু ভিডিও ক্লিপ। একটি ক্লিপে কিছু বাইনারি কোড নির্দেশ করছিলো, ডিকোড করার পর তা দাঁড়ায় “একবার আপনি এখানে ঢুকলে আর বের হওয়ার রাস্তা নেই, ঢুকার চেষ্টা করবেন না, এখানেই থেমে যান” ধারনা করা যাই মারিয়ানা’স ওয়েব কেমন ভয়ংকর একটি জায়গা, তবে একটা বিষয় এখনো রহস্যময় যে মারিয়ানা শহর এর মতো জায়গা থেকে এসে কেনো যে এই Surface Web এর মানুষ দিয়ে কাজ করাতে চাইলো। মারিয়ানা’স ওয়েবে প্রবেশ করতে হলে তার ঠিকানা তো লাগবেই সাথে সাথে লাগবে পাসওয়ার্ড। এছাড়া মারিয়ানা’স ওয়েব লেভেলে প্রবেশ করতে প্রয়োজন Polymeric Falcighol Derivation যার জন্য আপনার লাগবে কোয়ান্টাম কম্পিউটার। যার বাস্তব কোনো অস্তিত নেই,থাকলেও তা এখনো বিশ্ববাসীর কাছে অজানা তবে Google এবং NASA বলেছে তারা Super Computer বানাতে সক্ষম। কোয়ান্টাম কম্পিউটারকে সুপার কম্পিউটারও বলা যেতে পারে; এদের প্রোসেসিং স্পীড আমাদের সাধারন কম্পিউটার থেকে কয়েক হাজার গুণ বেশী হবে। মানা হয় মাত্র ৪টি কোয়ান্টাম কম্পিউটার দিয়ে সম্পূর্ণ আমেরিকার কম্পিউটারের ঘাটতি পূরন করা সম্ভব! মারিয়ানাস ওয়েব সম্পর্কে কোনো অফিসিয়াল তথ্য কোথাও পাওয়া যায় না। তাই বলে বলা যাবে না এর কোনো অস্তিত্ব নেই। কারণ বড় বড় দেশ, গোপন সংস্থা বা অপরাধী প্রতিষ্ঠানগুলো আমাদের সাধারণ জনগণের চোখের আড়ালে নেয় অনেক মানব বিধ্বংসী সিদ্ধান্ত , গোপন চুক্তি, এমন কী করে অনেক অমানবিক গবেষণা। লোকচক্ষুর আড়ালে আছে অনেক সিক্রেট সোসাইটি, আছে অনেক গোপন ষড়যন্ত্র।লুকিয়ে রাখা হয়েছে প্রাচীন ঐতিহাসিক তথ্য। হয়তো একদিন সব প্রকাশ পাবে। তবে ততোদিন পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে পৃথিবীর মানুষকে, অনেকেই বলে মারিয়ানা ওয়েব মিথ্যা কারণ অনেক বড় বড় হ্যাকারাও মারিয়ানা ওয়েব Access করতে পারেনি তবে অনেক গবেষণা করে জানা গেছে মারিয়ানা ওয়েব মিথ্যা না মারিয়ানা ওয়েব আছে।

I HOPE YOU LIKE THESE INFORMATION.

SHARE IT WITH YOUR FRIENDS

Post a Comment

0 Comments