বন্ধ হচ্ছে না ফেসবুক ! টেনশন নিবেন না!

বন্ধুরা কেমন আছেন সবাই? রমজানের রোজা রাখছেন তো! সেহরির পর ঘুম থেকে উঠেই দেখলেন ফেসবুক আর কাজ করছে না কিংবা সাইটটি চিরতরে বন্ধ। মাথায় বাজ পড়লো না তো! মন খারাপের কিছু হয়নি। আজ আমরা ফেসবুক বন্ধ নিয়ে সাম্প্রতিক যে আলোচনা চলছে সেটি নিয়ে কিছু কথা বলবো আপনাদের জন্য।

ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মার্ক জাকারবার্গ বলছেন, সহসাই বন্ধ হচ্ছে না সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমের জনপ্রিয় এই সাইটটি। সম্প্রতি ফ্রান্স সফরে গিয়ে জাকারবার্গ ব্যবহারকারীদের জন্য দিলেন মজার এক তথ্য। সেটি হলো, বর্তমানে ফেসবুকের যে আকারটি রয়েছে সেটি প্রকৃতপক্ষে ব্যবহারকারীদের জন্য সুবিধার। একই সঙ্গে এও জানিয়ে দিলেন, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ার জন্য যে ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা দরকার তার সবই আছে ফেসবুকে।


জাকারবার্গের দীর্ঘদিনের বন্ধু ও ফেসবুকের সহ প্রতিষ্ঠাতা ক্রিস হিউজ ব্যবহারকারীদের জন্য যে ভয়ের কথা বলেছিলেন সেটি পুরোপুরি নাকচ করে দিলেন ফেসবুকের প্রধান নির্বাহী। মার্ক বলছেন, নিউইয়র্ক টাইমসে হিউজ যেটি বলেছেন তা বাস্তবায়ন করলে সমস্যার সমাধান হবে না।

এর আগে মার্কিন সংবাদমাধ্যম নিউইয়র্ক টাইমসে মতামতধর্মী এক লেখায় ফেসবুক বন্ধের সময় হয়েছে বলে উল্লেখ করেন ফেসবুকের সহ প্রতিষ্ঠাতা ক্রিস হিউজ।
অনেকের কাছে হিউজের লেখাটি প্রশংসিত হলেও সেটি খুব একটা ভালো লাগেনি মার্ক জাকারবার্গের। তিনি বলেন, নিরাপত্তা ইস্যুতে আমরা এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি অর্থ ব্যয় করছি। বিশেষ করে ব্যক্তিগত নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে ফেসবুক। ক্রমান্বয়ে সব সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে।

জাকারবার্গ আরো জানান, এক দশক আগে ফেসবুক যখন পাবলিক প্রতিষ্ঠান হিসেবে যাত্রা শুরু করে তখন রাজস্ব আয় যা ছিল, বর্তমানে নিরাপত্তার জন্য তার চেয়ে বেশি অর্থ ব্যয় হচ্ছে। ফেসবুক সফল না হলে এটি করা সম্ভব হতো না।

ফেসবুক বন্ধ করে  দেয়ার মধ্যে কোনো সমাধান দেখছেন না সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির প্রধান নির্বাহী।  গ্রাহকদের আস্থা আবারও ফিরে পাবেন বলে আশা তার। প্রযুক্তির এই যুগে চ্যালেঞ্জ ক্রমেই বাড়ছে। তারপরও নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন মার্ক জাকারবার্গ।

ক্ষতিকর কন্টেন্ট ছড়ানো ও গোপনীয়তা রক্ষা না করার মতো অভিযোগ থাকলেও দিনে দিনে বাড়ছে ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা। ২০১৮ সালে ফেসবুকের মোট মুনাফা ছিল ২২ দশমিক ১ বিলিয়ন ডলার, যা ২০১৭ সালের চেয়ে ৩৯ শতাংশ বেশি।

সামাজিক যোগাযোগের এই মাধ্যমটি যাত্রা শুরু করে ২০০৪ সালের ৪   ফেব্রুয়ারি। হার্ভার্ড ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীদের অনলাইনে একত্রিত করার পরিকল্পনা থেকেই শুরু হয় ফেসবুকের যাত্রা। বর্তমান ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ২৩২ কোটি। ৩০ হাজারের অধিক কর্মচারী কাজ করেন প্রতিষ্ঠানটিতে।

ব্যবহারকারীদের জন্য ফেসবুক তাদের ফিচারিং ও সেটিংসে নানা ধরনের পরিবর্তন এনে থাকে। এজন্য ব্যবহারকারীর নিজের অ্যাকাউন্ট ঠিক রাখতে হলে সর্বদা আপডেট থাকতে হয়। এছাড়া ফেসবুক কোনো পরিবর্তন আনলে সেটি তারা সময় সময় জানিয়ে থাকে। যাতে ব্যবহারকারীরা কোনো ধরনের ঝামেলার সম্মুখীন না হয়।

ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি সুরক্ষিত রাখতে হলে ব্যবহারকারীকে কিছুটা সাবধানতা অবলম্বন করতে হয়। লগ ইন করার ক্ষেত্রে যেকোনো পিসিতে ‘কিপ মি লগড ইন’ বক্সে চেক করবেন না। কেবলমাত্র নিজের পিসিতে এটি করা যেতে পারে। কখনই নিজের পাসওয়ার্ড কারো সঙ্গে শেয়ার করা যাবে না। পাবলিক প্লেসে লগ ইন করা থেকে বিরত থাকতে হবে। সাবধান থাকতে হবে থার্ড পার্টি অ্যাপ নিয়ে। সবচেয়ে বেশি সতর্ক ও সচেতন থাকতে হবে প্রাইভেসি সেটিংস নিয়ে।

ফেসবুকের অপব্যবহার রোধে সব ব্যবহারকারীকে এগিয়ে আসতে হবে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটির সঠিক ব্যবহার প্রযুক্তি দুনিয়ায় নিজেদেরকে উন্নতির সোপানে নিতে সহায়তা করবে। এমন প্রত্যাশা তো করাই যায়। আজ এ পর্যন্তই। সামনের দিনে আবারো কথা হবে। নতুন কোনো বিষয়ে। সে পর্যন্ত টেকরাউন্ডের সঙ্গেই থাকুন।

Post a Comment

3 Comments

  1. Hey M Ahsan.
    I am an honourable Author of this Site.
    This is a nice Tune.
    But one problem i've seen is
    Title!
    Please try to use impresive title and its should be two lines.
    i hope you understand what i mean.

    ReplyDelete
  2. hi author shanto! everyday i am learning. so you should give me better advice & take care also! happy tuning!

    ReplyDelete