ইউটিউব ভিডিও Rank করার ট্রিকস ! How Too YouTube Video ( Part 2)


আসসালামু-আলাইকুম ফ্রেন্ডস।
আমি শান্ত।
এই টিউনে - ইউটিউব ভিডিও rank করার ট্রিকস শেয়ার করবো।
প্রথম পর্ব যারা পডেন নি তারা এখানে ক্লিক করুন  ➩Click Here
তো চলুন শুরু করি।
আগের টিউনে ৫ টি ট্রিক শেয়ার করে এখন বাকি পাঁচটি।
 ➨ Title
➨  Tag
➨ Description
 ➨ Backlink
➨ Social Media Marketing
➨ Feedback
এবার উপরের বিষয়গুলো নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

➨ Tag :

বর্তমানে গুগলের পরে সবচেয়ে বেশি সার্চ পড়ে ইউটিউব এ।আর ইউটিউব এ কাঙ্ক্ষিত ফলাফল পেতে সাহায্য করে টাইটেল এর পর ট্যাগ।ট্যাগ কে একটা ভিডিওর প্রাণ বলা যায়।তাই ভিডিওকে Rank করানোর ক্ষেত্রে ট্যাগ সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখে।অনেকে আবার ট্যাগ কি তাই জানেন না বা অনেকে বুঝতে পারেন না।তাদের উদ্দেশ্যে বলছি, ট্যাগ হচ্ছে এমন কিছু বাক্য যার দ্বারা আমরা আমাদের প্রয়োজনীয় ফলাফল বের করি।যেমন ধরুন, আপনি চাচ্ছেন আপনি একটা জিমেইল অ্যাকাউন্ট খুলবেন, কিন্তু আপনি জানেন না কিভাবে জিমেইল অ্যাকাউন্ট খুলতে হয়, তাহলে নিশ্চয় আপনি গুগল বা ইউটিউব এর হেল্প নিবেন। তখন আপনি সার্চবারে কি লিখবেন? নিশ্চয় এমন কিছু, how to create a gmail account বা create a gmail account বা gmail account এখন কথা হচ্ছে আপনি যেটাই লিখুন না কেন আপনি কিন্তু আপনার ফলাফল পেয়ে যাবেন।তার মানে ওই তিনটা ওই কন্টেন্ট এর জন্য ট্যাগ হতে পারে।যে কোন একটা লিখলেই আপনি ওই কন্টেন্ট টা পেয়ে যাবেন।আশা করি ট্যাগ জিনিসটা কি তা বুঝতে পেরেছেন। এখন কথা হল কেমন ট্যাগ ব্যবহার করা উচিৎ? ট্যাগ অবশ্যই আপনার ভিডিওর উপর নির্ভর করে কারণ ট্যাগ এর কাজ ই হচ্ছে আপনার ভিডিও কে ইঙ্গিত করা। এখন ধরুন আপনি একটা টেকনোলোজি ভিত্তিক ভিডিও আপলোড দিলেন আর ট্যাগ দিলেন Funny video 2018। আর এখন আমার ইচ্ছা হল ফানি ভিডিও দেখার আমি আপনার ওই ট্যাগটা লিখে সার্চ দিলাম আর প্রথমেই আপনার ভিডিওটা আসলো তাহলে কি আমি আপনার ভিডিওটা দেখব। অবশ্যই না।।তবে হ্যা যদি আপনার ভিডিওর বিষয়বস্তু ভাল হয় তাহলে অনেকে দেখবে।কিন্তু সবাই না। তাহলে আশাকরা যায় আপনারা বুঝতে পেরেছেন ভিডিও অনুযায়ী ট্যাগ ব্যবহার করতে হবে।আর একটা কথা ট্যাগ অবশ্যই সহজ, সরল, সাবলীল হতে হবে।কারণ জটিল ট্যাগ অ্যালগরিদম এর কাছে গ্রহণযোগ্য না।আর অতিরিক্ত এবং অযাচিত ট্যাগ ব্যবহার করা উচিত না।আপনার ভিডিওকে Rank করানোর জন্য সর্বোচ্চ ১০ টি ট্যাগই যথেষ্ট।

➨ Description :

একটা ভিডিওর বর্ণনা অনেক সময় ভিডিওকে Rank করাতে সাহায্য করে।কারণ ইউটিউব এর ভিউয়ার্স রা ভিডিও অডিও কিছুই বুঝতে পারে না।।তবে অ্যানালাইজ করতে পারে HD নাকি 3gp ও Mp3 নাকি Aac। কোনকিছুর কপি কি না তাও যাচাই করতে পারে।তাই আমাদের ভিডিও Ranking এর জন্য ট্যাগ টাইটেল এর পাশাপাশি ডেসক্রিপশন অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করে।

➨ Backlink  :

কোন ওয়েবসসাইট এ আমাদের কোন কন্টেন্ট এর লিংক ছেড়ে আসায় হল Backlink. তবে আমাদের কন্টেন্ট গুলো তখনই Rank করে যখন Backlink গুলো Do-follow ওয়েবসাইট এ করা যায়।Backlink এর কাজ মূলত ঐ সকল সাইট থেকে ভিজিটর আনা।তাই তাই ব্যাক লিংক করার সময় আমাদের খেয়াল রাখতে হবে ওয়েবসাইট গুলো যেন আমাদের কন্টেন্ট গুলোর সাথে মিল থাকে।তাহলে ভিজিটর এসে ঘুরে যাবে না।আর ইউটিউব এর জন্য সর্বোচ্চ ২০ ব্যাকলিংক ই যথেষ্ট প্রত্যেকটা ভিডিওর জন্য।

➨ Social Media Marketing :

Social Media Marketing বলতে বোঝায় Social Media এর ভিজিটর গুলোকে আমাদের লক্ষ্যে আনা।।আর এই কাজটা আমরা করতে পারি Social Media গুলোতে আমাদের কন্টেন্ট গুলোকে শেয়ার বা প্রমোট এর মাধ্যমে।

➨Feedback :

 Like, Dislike, Comment, Share এই সকল ফিডব্যাকগুলো শুধুমাত্র ইউটিউব না সকল সাইটের জন্য খুব উপকারী।তাই আপনার ভিজিটরদের কাছে থেকে সবসময় এইগুলো পাওয়ার চেষ্টা করবেন।আর এই সকল ফিডব্যাক গুলো আমাদের ভিডিওকে Rank করানোর জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে।

তো টিউনটি এ পর্যন্তই।  এভাবে কাজ করলে আপনার ভিডিও দ্রুত  Rank করবে।
আপনার বিন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন।
টিউনরাউন্ড এর সাথে থাকুন।

Post a Comment

0 Comments