অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র চেক ও ডাউনলোড করার উপায়

অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র চেক ও ডাউনলোড করার উপায়

আসসালামু আলাইকুম বন্ধুরা কেমন আছেন? আসা করি আপনারা সবাই ভালো আছেন। বন্ধুরা আপনারা যারা এখনো ন্যাশনাল আইডি কার্ড (Nid card) বা স্মার্ট আইডি কার্ড পাননি আপনারা হয়তোবা অনেকদিন আগে ছবি তুলেছেন ভোটার আইডি কার্ডের নিবন্ধন করেছেন। কিন্তু এখনো আপনার ভোটার আইডি কার্ডটি হাতে পাননি আথবা আপনার ভোটার আইডি কার্ডটি হারিয়ে ফেলেছেন এখন আপনার একটি অনলাইন কপি দরকার। আর যেকোনো মুহুর্তে আপনার এই ভোটার আইডি কার্ড খুবই প্রয়োজনীয় হতে পরে। তাদের জন্য আজকের এই আর্টিকেল লেখা। আমি এই আর্টিকেলে বিস্তারিত দেখাবো কিভাবে আপনি অনলাইনে বাংলাদেশী জাতীয় পরিচয় পত্র (Bangladeshi national identity card) চেক এবং ডাউনলোড করতে পরবেন। এই ন্যাশনাল আইডি কার্ড না থাকার জন্য আমরা অনেক সময় সিম কিনতে বা ওঠাতে গিয়ে অথবা বিকাশ একাউন্ট খুলতে গিয়ে অনেক সমস্যায় পড়ি।

Nid card ডাউনলোড করার উপায়ঃ

প্রথমে আপনার কম্পিউটার অথবা স্মার্টফোন ব্রাউজারে যাবেন গিয়ে গুগল সার্চ বক্সে Online nid bd লিখে সার্চ দেওয়ার পরে দেখবেন ভোটার তথ্য – NID Service – Election Commission Bangladesh লেখা আছে এই লিংক টায় ক্লিক করুন। ক্লিক কারার পরে দেখবেন নির্বাচন কমিশন বাংলাদেশর ওয়েবসাইট চলে এসেছে।

এবার উপরে মেনু বারে দেখুন ভোটার তথ্য লেখা আছে ওইটাই ক্লিক করুন অথবা ডাইরেক্ট ঢুকতে চাইলে এই লিংক টায় ক্লিক করুন একটা ফরম আসবে এই ফরম আমরা কিছু বিষয় দেখতে পাবো। একটা হচ্ছে ফরম নাম্বার দিয়ে আমরা তথ্য জানতে পারবো আরেকটা হচ্ছে এনআইডি নাম্বার দিয়ে। আমরা যারা ভোটার হয়েছিলাম বা ভোটার নিবন্ধন ফরম পূরণ করেছিলাম তখন আমাদেরকে একটা নিবন্ধন স্লিপ দিয়েছিলো। সেখানে যেই ভোটার নিবন্ধন ফরমের স্লিপ নম্বর আছে প্রথম বক্সে আমরা এই ফরম নাম্বার টা দেবো দ্বিতীয় বক্সে জন্ম তারিখ এবং তৃতীয় বক্সে ক্যাপচা টাইপ করতে হবে এখানে ক্যাপিটাল লেটার ইস্মল লেটার থাকবে সঠিক ভাবে পুরন করতে হবে এবার ভোটার তথ্য দেখুন অপশন টিতে ক্লিক করুন।

ফরম পুরন সঠিক হলে আপনার আইডি কার্ডের সকল তথ্য দেখাবে এখানে আপনার রেড কালারের এনআইডি নাম্বার দেখাবে এটা কপি করে সেভ করে রাখুন। এটি পরবর্তী ধাপে কাজে লাগবে।

এবার এই লিংকে ক্লিক করে যেই তথ্য গুলো চাই এই তথ্য গুলো দিয়ে রেজিষ্টার করে নিন। প্রথমে আপনার যেই এনআইডি নাম্বার টা কপি করে সেভ করে রেখেছিলেন ওইটা দিন এরপর জন্ম তারিখ মোবাইল ফোন নম্বর দিতে হবে যে মোবাইল টা আপনার চালু আছে। কারণ এই মাম্বারে একটা ভেরিফিকেশন কোড পাঠাবে অবশ্যই আপনার মোবাইল নাম্বারটা দিবেন। আর এখানে ইমেইল দিলে ভালো নাদিলে কোনো সমস্যা নেই ইমেইল বক্স খালি রাখুন।

আপনার বর্তমান ঠিকানা দেবেন তথ্যভাণ্ডারে সংরক্ষিত অর্থাৎ আপনি যেখানে ভোটার হয়েছেন সেটি দিয়ে পূরণ করবেন যেমন আপনি যদি বরিশালের অধিবাসী মানে স্থায়ী ঠিকানা হয় আর আপনি যদি ঢাকাতে ভোটার হয়ে থাকেন তাহলে অবশ্যই বর্তমান ঠিকানা ঢাকা দিবেন অর্থাৎ আপনি যেখানে আছেন সেখান কার তথ্যটা দিবেন তারপর আপনাকে স্থায়ী ঠিকানা টা দিয়ে ফরমের সবগুলো ফিলাপ করবেন।

লগইন পাসওয়ার্ডটা অবশ্য ৮ থেকে ১২ সংখ্যার মধ্যে হতে হবে এবং পাসওয়ার্ড এ ক্যাপিটাল লেটার স্মল লেটার এবং সংখ্যা হতে হবে। পুনরায় পাসওয়ার্ড দেওয়ার পরে আমরা ক্যাপচা লিখব ক্যাপচা টাইপ করার পরে রেজিষ্টারে ক্লিক করব।

রেজিষ্টারে ক্লিক করার পর নতুন একটা পেজ আসবে এই পেজে পুনরায় এনআইডি নাম্বার দিতে হবে তার পর জন্ম তারিখ পাসওয়ার্ড ভেরিফিকেশন নাম্বার পেতে অর্থাৎ আমরা যে মোবাইল নাম্বার দিয়েছিলাম ঐ নাম্বারে একটা কোড যাবে এরপর আবার ঐ ক্যাপচা টাইপ করে সামনে লেখাতে ক্লিক করতে হবে।

সামনে লেখাতে ক্লিক করার পরে আপনার মোবাইল একটা ভেরিফিকেশন কোড আসবে কোডটা বক্সে লিখে লগইন ক্লিক করবেন

এবং দেখতে পাবেন আপনার কাংক্ষিত ন্যাশনাল আইডি কার্ড ছবি সহ দেখাচ্ছে আমার সিকিউরিটির জন্য কিছু তথ্য হিডেন করে দেওয়া হলো

উপরে ডান পাশে পরিচয় বিবরনী এখানে ক্লিক করার পর আপনি PDF আকারে পেয়ে জাবেন

এবং ডাউনলোড করে আপনি প্রিন্ট করে যেকোনো কাজ ব্যাবহার করতে পারবেন।

ধন্যবাদ সকলকে আর্টিকেলটি যদি ভালো লেগে থাকে আপনার যদি কিছু উপকার হয় তাহলে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করে জানাবেন। আর আপনার যদি কোন রকম সমস্যা হয় ন্যাশনাল আইডি কার্ড ( Nid card) পেতে তাহলে কমেন্ট করে আমাদেরকে জানাবেন আমরা আপনার যথাসাধ্য সাহায্য করার চেষ্টা করব ইনশাআল্লাহ।

2 thoughts on “অনলাইনে জাতীয় পরিচয় পত্র চেক ও ডাউনলোড করার উপায়

  • January 5, 2020 at 10:30 am
    Permalink

    অনেক ধন্যবাদ আপনাকে এত সুন্দর সহজভাবে লেখার জন্য।

    • January 5, 2020 at 10:43 am
      Permalink

      আপনাকেও অসংখ্য ধন্যবাদ মূল্যবান কমেন্ট করার জন্য।

Leave a Reply